ঠাকুরগাঁও প্রথম নারী মেয়র বন্যা

চতুর্থ দফায় ভোটগ্রহণ শেষে ঠাকুরগাঁও পৌরসভায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা বিপুল ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তিনিই ঠাকুরগাঁও পৌরসভার প্রথম নারী মেয়র।

রোববার সন্ধ্যায় বেসরকারিভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন ঠাকুরগাঁও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার জিলহাজ উদ্দীন। ঠাকুরগাঁও পৌরসভার মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আঞ্জমান আরা বেগম বন্যা পেয়েছেন ২৬ হাজার ৫০২ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী শরিফুল ইসলাম শরিফ পেয়েছেন ৫ হাজার ৩৩৩ ভোট। এছাড়াও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী আনোয়ার হোসেন পেয়েছেন ১ হাজার ৬৩ ভোট।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা জিলহাজ উদ্দীন বলেন, ‘সকাল ৮টা থেকে ঠাকুরগাঁও পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডে ২১টি কেন্দ্রে ইভিএম মেশিনের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ করার জন্য বিজিবি, পুলিশ, ভ্রাম্যমান আদালতসহ বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছিল এবং ভালোভাবেই ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে।’

ঠাকুরগাঁও পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ৬০ হাজার ৭২৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ২৯ হাজার ৭১২ জন ও নারী ভোটার সংখ্যা ৩১ হাজার ১৫ জন।

এদিকে দুপুর ১২টার দিকে জেলা বিএনপির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে ভোটে অনিয়মের অভিযোগে তুলে ভোটের ফলাফল প্রত্যাখান করে বিএনপি। এসময় ধানের শীষের প্রার্থী শরিফুল ইসলাম শরিফ, জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আমীন প্রমুখ।

ওমেন বাংলাদেশ/ শেখ