পরিস্থিতি ভালো না : তাহমিনা অথৈ

‘ওয়ার্ল্ড মিস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হওয়ার মাধ্যমে শোবিজে পথচলা শুরু তাহমিনা অথৈ এর। নিজের সৌন্দর্য, মিষ্টি লুক আর অভিনয় দিয়ে ইতিমধ্যেই শোবিজের বেশ পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছেন তিনি। সমানতালে কাজ করছেন টিভি নাটক থেকে শুরু করে চলচ্চিত্রে। পাশাপাশি করছেন উপস্থাপনাও। তার বর্তমান সময়ের কাজের ব্যস্ততা ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে খোলামেলা বলেছেন ডেইলি ওমেন বাংলাদেশের সাথে। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন যাযাবর পলাশ।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশে :- কেমন আছেন?
তাহমিনা অথৈ :- আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- শুরুতেই আপনার শোবিজে আসার প্রথম গল্পটা শুনতে চাই।
তাহমিনা অথৈ :- আমার শুরুটা হয়েছিল উপস্থাপনার মধ্য দিয়ে। বাংলাভিশনে খায়রুল বাবুই পরিচালিত ‘ দিন প্রতিদিন ‘ দিয়ে শুরু হয়েছিল। ঢাকায় কাজের জন্য আসা লেখক ও পরিচালক মোস্তফা মননের হাত ধরে।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- যেদিন আপনি ‘মিস ইউনিভার্সিটি’ ঘোষিত হলেন সেদিনের অনুভূতি জানতে চাই।
তাহমিনা অথৈ :- বিজয়ী হতে কার না ভালো লাগে। অনেক গর্ব হয়েছিলো নিজের দেশকে নিয়ে। বিষয়টা অনেক আনন্দের, আবার গৌরবেরও।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- বর্তমানে কি কি কাজ চলছে?
তাহমিনা অথৈ :- নতুন সিনেমার কাজের প্রস্তুতি চলছে। আর বর্তমান করোনা পরিস্থিতি মেনে নিয়ে সুস্থ ও ভালো থাকার প্রচেষ্টা সবসময়।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- চলচ্চিত্রে আসার পর ছোট পর্দায় আগের তুলনায় একটু কমই দেখা যাচ্ছে, তাহলে কি ধীরেধীরে টিভি নাটক ছেড়ে দিচ্ছেন?
তাহমিনা অথৈ :- আমার কাছে ছোট পর্দা, বড় পর্দার পার্থক্য খুব বেশি নয়। দুইটাই অভিনয়ের জায়গা। যে মাধ্যমেই হোক না কেনো গল্প ও চরিত্র মনের মতো হলে কাজ করবো।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- আপনার উল্লেখযোগ্য কাজগুলো নিয়ে কিছু বলুন।
তাহমিনা অথৈ :- উপস্থাপনায় প্রোগ্রাম- বাংলাভিশন ‘দিন প্রতিদিন’, দূরন্ত টিভি – ‘আনন্দ উৎসব’, এনটিভি-‘প্রিয় শখ’।
চলচ্চিত্র – সাইদূল আনাম টুটুল এর ‘কালবেলা’, মানিক মানবিক এর ‘ছেলেটি অদ্ভুত’।
নাটক- বাবু বিভ্রাট, তবুও বাসবো ভালো, মেট্রো লাভ, একদিন ভালোবাসা হবে, আদর্শলিপি, সারথি, লুকোচুরি লুকোচুরি গল্প ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- সিনেমা হোক বা নাটক, কোন ধরনের গল্প আশা করেন?
তাহমিনা অথৈ :- সব গল্পই কোন না কোন ঘটনা ও পরিস্থিতি নিয়ে গঠিত। যেখানে প্রত্যেকটা চরিত্র সতেজ ও শক্তিশালী এমন গল্প।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- অভিনয়ের বাইরে আর কি কিছু করেন?
তাহমিনা অথৈ :- না কিছু করিনা। পুরোটা অভিনয় নিয়েই আছি।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- সিনেমায় বা নাটকে এখন পর্যন্ত যে হিরো দের সাথে অভিনয় করেছেন, তাদের মধ্যে সবচাইতে কার সাথে অভিনয় করতে ভালো লেগেছে বেশি?
তাহমিনা অথৈ :- আমি সবার সাথে কাজ করেই আনন্দ পাই। একেক জন মানুষ একেক রকম। কাজের ধরন ও আলাদা। তাই প্রত্যেকের সাথেই কাজ করতে ভালো লাগে, অনেক বিষয় শেখার আছে।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- সুপারস্টার শাকিব খানকে আপনার কেমন লাগে?
তাহমিনা অথৈ :- তিনি গুনীজন। ভালো না লাগার কারন নেই। তাছাড়া যারা চলচ্চিত্র এগিয়ে নেয়ার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি উনাদের মধ্যে অন্যতম। উনার জন্য শুভকামনা।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- শাকিব ও অথৈ জুটি নিয়ে কিছু বলুন?
তাহমিনা অথৈ :- সব অভিনয় শিল্পীই তার সময়কার সুপারস্টার এর সাথে কাজ করতে ইচ্ছুক, আমিও তার বাইরে নই। তার সাথে জুটি হয়ে কাজ করতে পারলে ভালো লাগবে।

ডেইলি ওমেন বাংলাদেশ :- সিনেমা হল তো আবারও খুলে দেয়া হয়েছে, আসন্ন মুভি গুলো কি আগের মতো সিনেমা হলে ভিড় জমাতে পারবে? এ বিষয়ে কিছু বলুন।
তাহমিনা অথৈ :- যেহেতু পরিস্থিতি ভালো নয়, সেহেতু একটু সতর্কতা মেনে চলতেই হবে। সিনেমা বাচিয়ে রাখতে হলে সিনেমা হল কেও বাচিয়ে রাখতে হবে। সেক্ষেত্রে আগের মতো ভিড় না হলেও কিভাবে ভালো হয় সেটা ভাবনা চিন্তার মাধ্যমে সমাধান করা যেতে পারে।